চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

ট্রাম্প প্রশাসনের বিরুদ্ধে ১৭ অঙ্গরাজ্যের মামলা

অভিবাসী পরিবারগুলোতে বাবা-মায়ের থেকে সন্তানদের আলাদা করা ‘নিষ্ঠুর ও অবৈধ’ নীতির জন্য ট্রাম্প প্রশাসনের বিরুদ্ধে মামলা করেছে যুক্তরাষ্ট্রের ১৭টি অঙ্গরাজ্য।

বিজ্ঞাপন

ওয়াশিংটন, নিউইয়র্ক ও ক্যালিফোর্নিয়াসহ ১৭টি অঙ্গরাজ্যের ডেমোক্র্যাট অ্যাটর্নি জেনারেল যৌথভাবে মঙ্গলবার এই মামলা দায়ের করেন।

মামলা করা রাজ্যগুলো হলো: ওয়াশিংটন, ম্যাসাচুসেটস, ক্যালিফোর্নিয়া, নিউইয়র্ক, ডেলাওয়্যার, আইওয়া, ইলিনয়, ম্যারিল্যান্ড, মিনেসোটা, নিউ জার্সি, নিউ মেক্সিকো, নর্থ ক্যারোলিনা, অরিগন, পেনসিলভেনিয়া, রোড আইল্যান্ড, ভার্মন্ট ও ভার্জিনিয়া।

বিজ্ঞাপন

যুক্তরাষ্ট্র-মেক্সিকো সীমান্ত দিয়ে কাগজপত্র ছাড়াই যুক্তরাষ্ট্রে প্রবেশের চেষ্টা করা অভিবাসন প্রার্থীদের প্রবেশে বাধা দেয়া এবং সেসব পরিবারের কাছ থেকে শিশুদের আলাদা করে দেয়ার নতুন নীতির প্রতিবাদ হিসেবে মামলাটি করা হয়েছে।

এর আগে মেক্সিকো সীমান্তে অভিবাসন প্রত্যাশীদের রুখতে ‘জিরো টলারেন্স’ নীতি ঘোষণা করার পর আবার গত ২০ জুন ট্রাম্প প্রশাসন সেই পরিবারগুলোকে একসাথে রাখার নির্দেশ দেয়। সেই নির্দেশকেও ‘ছলনা’ বলে বর্ণনা করা হয়েছে ওয়াশিংটনের সিয়াটলে অবস্থিত ইউএস ডিস্ট্রিক্ট কোর্টে দায়ের করা ওই মামলায়।ট্রাম্প প্রশাসন-অভিবাসন নীতি-অভিবাসী

একই দিনে আবার মার্কিন ভাইস প্রেসিডেন্ট মাইক পেন্স কাগজ ছাড়া অভিবাসীদের ব্রাজিলে এক সংবাদ সম্মেলনে সতর্ক করে বলেছেন, যদি কেউ বৈধভাবে যুক্তরাষ্ট্রে প্রবেশ করতে না পারে তাহলে তার আসার প্রয়োজন নেই।

পেন্স বলেন, আমেরিকায় যারা আশ্রয় চান তাদের উদ্দেশ্যে সরাসরি তার মন থেকে বলা কথা হলো: ‘আপনি যদি বৈধভাবে আসতে না পারেন, তবে একেবারেই আসবেন না।’

‘মাদক বা মানব পাচারকারীদের সাহায্য নিয়ে লুকিয়ে যুক্তরাষ্ট্রে আসার চেষ্টা করে আপনারা নিজেদের বা নিজেদের সন্তানদের জীবন ঝুঁকির মুখে ফেলবেন না,’ বলেন তিনি।