চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

টাকার অভাবে থমকে আছে এফডিসির নতুন মুখের সন্ধান?

১৯৮৪ সালে প্রথম এফডিসির উদ্যোগে ‘নতুন মুখের সন্ধান’ প্রতিযোগিতা শুরু হয়। চলে ১৯৯০ সাল অবধি। এরপর নতুন মুখের সন্ধানের নতুন কোন খবর ছিল না প্রায় ২৮ বছর! হটাৎ গেল বছরের শুরুর দিকে বাংলাদেশ চলচ্চিত্র পরিচালক সমিতি থেকে প্রায় তিন দশক বন্ধ থাকা এই প্রতিযোগিতা আবার শুরুর ঘোষণা আসে।

ঘোষণায় আশার আলো দেখলেও সেই আলো এখনো জ্বলেনি। তিন দফা পিছিয়েছে এই ঘোষণা। বছর পার হয়ে গেলেও আয়োজকরা নতুন করে শুরু করতে পারেনি ‘নতুন মুখের সন্ধান’।

কী কারণে নতুন মুখের সন্ধানে শুরু করা যাচ্ছে না সে কারণ জানবার চেষ্টা করেছে চ্যানেল আই অনলাইন। গেল বছরের ডিসেম্বরের প্রথম সপ্তাহ, এরপর তা পিছিয়ে এ বছরের ১ জানুয়ারি তারপর ১ মাস পিছিয়ে ১ ফেব্রুয়ারি।

সেই ১ ফেব্রুয়ারি সময় থেকে দেড় মাস সময় অতিবাহিত হলেও এখনো নতুন কোন খবর নেই নতুন মুখের সন্ধানের। কী কারণে খবর নেই জানতে চাওয়া আয়োজক সংগঠক পরিচালক সমিতির মহাসচিব বদিউল আলম খোকনের কাছে।

তিনি জানালেন, টাকার অভাবে কার্যক্রম শুরু করা যাচ্ছে না। এই প্রতিযোগিতার জন্য প্রয়োজন প্রায় তিন কোটি টাকা। যা এখনো জোগাড় হয়নি।

তবে বদিউল আলম খোকন আশার কথা জানিয়ে বলেন, তহবিলের জন্য স্পন্সরদের সাথে কথা হচ্ছে আশা করি কাজ হয়ে যাবে। এরই মধ্যে মিডিয়া পার্টনার হিসেবে চুক্তি হয়েছে এশিয়ান টেলিভিশনের সাথে।

এদিকে সংগঠনটির সভাপতি মুশফিকুর রহমান গুলজারও কার্যক্রমটি নিয়ে ইতিবাচক মনোভাব দেখালেন। তার বক্তব্য: এই প্রতিযোগিতা শুরুর সব আয়োজন প্রস্তুত। খুব তাড়াতাড়ি শুরু হবে কার্যক্রম।

তবে তিন দফা পেছানোর কারণ নিয়ে সভাপতি জানালেন: অন্য একটি কারণে আমরা কয়েকবার তারিখ পিছিয়েছি। সেটার সমাধান হয়ে গেছে। আগামি সপ্তাহে চূড়ান্তভাবে সময় জানানো হবে। আর পেছানো হবে না।

আয়োজক সংগঠনের সভাপতি ও মহাসচিব-এর এমন বক্তব্যের পর খুব দ্রুত শুরু হবে ‘নতুন মুখের সন্ধান’, এমনটাই আশা করছেন অনেকে। সেই আশা আবার কয়েক দফা না পেছালেই নতুন করে অভিনেতা অভিনেতী হওয়ার সুযোগ হবে চলচ্চিত্র প্রেমীদের।

নতুন মুখ সন্ধানের মাধ্যমে চলচ্চিত্রে আসেন মান্না, দিতি, মিশা সওগাদর, অমিত হাসান, আমিন খান, সোহেল চৌধুরীর মত তারকারা।

FacebookTwitterInstagramPinterestLinkedInGoogle+YoutubeRedditDribbbleBehanceGithubCodePenEmail