চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

চীনের অপরাধী প্রত্যর্পণ বিল নিয়ে উত্তাল হংকং

চীনের প্রস্তাবিত প্রত্যর্পণ বিলের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানিয়ে হংকং এর রাস্তায় বিক্ষোভ করছে হাজার হাজার মানুষ। গত পনের বছরের মধ্যে এটিই হংকং এর সবচেয়ে বড় বিক্ষোভ সমাবেশ। বিলটি আইনে পরিণত হলে চীন সন্দেহভাজন ব্যক্তিকে যেকোন সময় বিচারের মুখোমুখি করতে পারবে।

বিজ্ঞাপন

চীনের সিভিল হিউম্যান রাইটস ফ্রন্ট জানিয়েছে, এই ইস্যুতে গত এপ্রিলে আয়োজিত এক কর্মসূচিতে এক লাখ ৩০ হাজার মানুষের জড়ো হয়েছিল৷ বন্দি বহিঃসমর্পণের বিরুদ্ধে অবস্থান নেয়া মানুষের সংখ্যা এখন আরো অনেক বেশি৷

এদিকে, পুলিশ প্রধান জনগণকে শান্ত থাকতে অনুরোধ করেছেন। এছাড়া প্রায় ৫০ হাজার বিক্ষোভকারীদের নিয়ন্ত্রণে ২০ হাজার পুলিশ নিয়োজিত করা হয়েছে শহর জুড়ে।

বিজ্ঞাপন

বিক্ষোভকারীরা তীব্র প্রতিরোধ উপেক্ষা করে সাদা জামা পরে বিক্ষোভে অংশ নিয়েছে। সকল বয়সের মানুষ যোগ দিয়েছেন বিক্ষোভ সমাবেশে। শিক্ষক, ছাত্রসহ গণতন্ত্রকামী সকল মানুষ প্রতিবাদ সমাবেশে যোগ দিয়েছেন।

হংকং চীনের বিশেষ প্রশাসনিক অঞ্চল হিসেবে বিবেচিত হলেও ২০৪৭ সালের মধ্যে অঞ্চলটির স্বায়ত্তশাসনের নিশ্চয়তা দিয়েছে চীন প্রশাসন৷

১৯৯৭ সালে হংকংকে চীনের কাছে ফেরত দেয়া হয়েছিল৷ প্রসঙ্গত, গতবছরের এক ঘটনার প্রেক্ষিতে প্রস্তাবিত এই বিলটি তৈরি করা হয়৷

তাইওয়ানে ছুটি কাটানোর সময় অন্তঃসত্ত্বা বান্ধবীকে হত্যার অভিযোগ ওঠে হংকংয়ের এক ব্যক্তির বিরুদ্ধে৷ কিন্তু তাইওয়ানের সঙ্গে হংকংয়ের বন্দি বিনিময়ের কোন চুক্তি না থাকায় সেই ব্যক্তিকে এখন তাইপেতে বিচারের জন্য পাঠানো যাচ্ছে না৷

প্রস্তাবিত বিলে এরকম পরিস্থিতিতে সন্দেহভাজন অপরাধীকে ফেরত পাঠানোর পথ সুগম করা হয়েছে৷ কিন্তু চীন এই আইনের সুবিধা নিয়ে হংকংয়ের বাসিন্দাদের উপর খবরদারি বাড়াতে পারে বলে সন্দেহ থাকায় বিষয়টি সেখানে এক রাজনৈতিক ইস্যুতে পরিণত হয়েছে বলে দাবি সাধারণ মানুষের৷