চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

‘ঘরসংসারের প্রতিশ্রুতি’ দিয়ে জামিনে সানি

ক্রিকেটার আরাফাত সানি তাকে স্ত্রী হিসেবে মেনে নিয়ে ঘরসংসার করবেন তাই জামিনে আপত্তি নেই এমন কথা জানানোর পর নারী ও শিশু নির্যাতন আইনের মামলায় সানিকে এক মাসের অন্তর্বর্তী জামিন দিয়েছেন আদালত।

ঢাকা মহানগর দায়রা জজ মো. কামরুল হাসান মোল্লার আদালতে উপস্থিত হয়ে নাসরিন সুলতানা জানান, তাদের মধ্যে সমঝোতা হয়েছে। সানির জামিনে তার আপত্তি নেই।

আইনজীবীরা জানান: অনাপত্তির কারণ হিসেবে তিনি উল্লেখ করেন, সানি তাকে স্ত্রী হিসেবে মেনে নিয়ে ঘরসংসারের প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন।

পরে শুনানি শেষে আদালত সানির অন্তর্বর্তী জামিন মঞ্জুর করেন। এ মামলায় আগেই জামিন পেয়েছেন সানির মা।

তবে, সানির বিরুদ্ধে তথ্যপ্রযুক্তি আইনে একটি এবং যৌতুক আইনে আরো একটি মামলা করেছিলেন তার স্ত্রী দাবিদার নাসরিন সুলতানা। তাই তিনি কখন জামিনে মুক্ত হতে পারবেন সেটা কেউ নিশ্চিত করে বলতে পারেননি।

নাসরিনের দাবি, পরিবারের অমতে গত ৪ ডিসেম্বর তাদের বিয়ে হয়। আরাফাত সানি অনেকদিন তার সঙ্গে থেকেছেন। তাকে থাইল্যান্ডেও নিয়ে গেছেন।

তখন তিনি এও বলেছিলেন, সানি তাদের বিয়ে অস্বীকার করার পর তিনি (নাসরিন) প্রতিবাদমুখর হয়ে উঠলে সানি ফেসবুক মেসেঞ্জারে তার (নাসরিনের) কিছু ছবি পাঠিয়ে ‘ব্ল্যাকমেইল’করার চেষ্টা করেন।

এ কারণে গত ৫ জানুয়ারি তিনি আরাফাত সানির বিরুদ্ধে তথ্য প্রযুক্তি আইনের ৫৭ (২) ধারায় মোহাম্মদপুর থানায় মামলা করেন। সতেরো দিন পর ওই মামলায় ২২ ফেব্রুয়ারি সাভারের আমিনবাজার থেকে সানিকে গ্রেফতার করা হয়।

তখন আরাফাত সানি পুলিশের কাছে দাবি করেছিলেন, কেউ তার ক্যারিয়ার নষ্ট করার উদ্দেশ্যে অথবা অন্য কোন ষড়যন্ত্রের অংশ হিসেবে তার ফেসবুক অ্যাকাউন্ট থেকে মেসেঞ্জারে ওই মেয়ের কাছে ছবি পাঠিয়ে থাকতে পারে। তিনি এরকম কিছু করেননি।

নাসরিন সুলতানার সঙ্গে বিয়ে বা অন্য কোন সম্পর্কের কথাও অস্বীকার করেছিলেন আরাফাত সানি।