চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

গরমে গাড়ি ঠান্ডা রাখতে গোবরের ব্যবহার

সীমাহীন গরম পড়ছে ভারতে। কোথাও কোথাও তাপমাত্রা প্রায় ৪৫ ডিগ্রী সেলসিয়াসের উপরে। এমন গরম থেকে বাঁচতে সেখানকার লোকজন নানান পন্থা অবলম্বন করছে। তবে গ্রীষ্মের এই তাপদাহে দেখা গেলো অভিনব এক পন্থা। যা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ঝড় তুলেছে।

বিজ্ঞাপন

ভারতের আহমাদাবাদের জনৈক বাসিন্দা তীব্র তাপদাহ থেকে বাঁচতে অবিশ্বাস্য কাণ্ড ঘটিয়েছেন। তিনি নিজের গাড়িকে শীতল রাখতে গরুর গোবর দিয়ে পুরো গাড়িটিকেই আবৃত করেছেন। যাকে বলা হচ্ছে ‘কুলিং হ্যাক’।

স্থানীয় ফেসবুক ব্যবহারকারী রূপেশ গৌরঙ্গ দাস ফেসবুকে সেই গোবর মাখানো গাড়ির ছবি শেয়ার করে লিখেছেন, ‘আমি গরুর গোবরের এমন সর্বোত্তম ব্যবহার জীবনে প্রথম দেখলাম।’

বিজ্ঞাপন

তিনি আরো লিখেছেন, ‘ছবিগুলো আহমেদাবাদ থেকে নিয়েছিলাম। যেখানে তাপমাত্রা ৪৫ ডিগ্রী অতিক্রম করছে। মিসেস সেজাল শাহ তার গাড়িতে গরুর গোবর লেপে দিয়েছেন, যা গাড়িকে শীতল রাখছে।’

রূপেশ তার ফেসবুকে ছবিগুলো পোস্ট করার পর অনেকের কৌতুহলী জিজ্ঞাসা ছিলো যে, গোবরের গন্ধ নিয়ে কিভাবে গাড়ির যাত্রীরা যাতায়াত করবেন? আবার কিছু লোক জানতে চাইলেন যে, এমনভাবে গাড়িটিকে সাজাতে ও গাড়িতে শীতল রাখতে গোবরের স্তরের পরিমাণ কত লাগছে?’

ঐতিহ্যগতভাবে গ্রামীণ ভারতের ঘর-বাড়ির দেয়াল ও মেঝে পরিস্কার রাখতে গরুর গোবর ব্যবহার করা হয়।  ব্যবহারকারীদের বিশ্বাস, এতে শীতকালে গরম অনুভূত হয় এবং গ্রীষ্মে শীতল থাকে।

এছাড়াও গোবরকে প্রাকৃতিক কীটনাশক হিসেবেও দেখা হয়। অনেক সময় মশার বিরক্তিকর আচরণ থেকে রক্ষার্থে সহযোগিতা করে। গ্রামীণ দৈনন্দিন জীবনে এর ব্যবহার ও এমন ধারণা বেশ প্রচলিত।

এর আগে ভারতের অনেক নেতা গোমূত্র ও গোবরের বিভিন্ন সুবিধার কথা দাবি করেছেন। পাশাপাশি কোনো কোনো প্রতিষ্ঠান গোমূত্র দিয়ে ফ্লোর ক্লিনারসহ বিভিন্ন পণ্য বাজারজাত করেন। এছাড়াও মোবাইল ফোনের বিকিরণ বন্ধে কিভাবে এর প্রয়োগ করা যায় সে পন্থাও বাতলে দেওয়ার চেষ্টা করেছেন কেউ কেউ।

এমনকি কিছু দিন আগে ভারতীয় জনতা পার্টি-বিজেপি’র এক নেতা গোমূত্র পান করলে দূরারোগ্য ক্যানসার সম্পূর্ণরূপে নিরাময় হয় বলে দাবি করেন।