চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

খালেদা জিয়াহীন বিএনপিতে বৈশাখী আনন্দ নেই

জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় সাজাপ্রাপ্ত খালেদা জিয়া যখন পুরনো ঢাকার কারাগারে বন্দিজীবন পার করছেন তখন পুরো দেশ মেতেছে বৈশাখী উৎসবে। কিন্তু বিএনপির নেতাকর্মীদের মাঝে উৎসবের লেশ মাত্র নেই। তারা বিধ্বস্ত, বিমর্ষ, হতাশায় মুহ্যমান।

বিজ্ঞাপন

বিএনপি নেতাকর্মীদের মধ্যে বৈশাখী শুভেচ্ছা বিনিময়ও নেই। শুভেচ্ছা জানাতে রক্তক্ষরণ হচ্ছে তাদের। সেই মনোভাব ব্যক্তও করছেন প্রকাশ্যে।
অন্যান্য বছর পহেলা বৈশাখে সকাল বা বিকালের দিকে শোভাযাত্রা করলেও এবার তার কোনো চিহ্ন দেখা যায়নি। তবে বিকালে নয়াপল্টন কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে ক্ষুদ্র আকারে বর্ষবরণ অনুষ্ঠান করে জাতীয়তাবাদী সামাজিক সাংস্কৃতিক সংস্থা জাসাস। এই অনুষ্ঠানের ব্যানারে লেখা ‘গণতন্ত্রের মা দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার নিঃশর্ত মুক্তি চাই’।

বর্ষবরণ অনুষ্ঠানে উপস্থিত নেই বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। গত দুদিন আগে মারা গেছেন মহাসচিবের মা ফাতিমা আমিন। একদিকে নিজেদের নেত্রী কারাগারে। অন্যদিকে মায়ের মৃত্যু; মহাসচিব সবচেয়ে বেশি বিধ্বস্ত।

তবে উপস্থিত ছিলেন জাতীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, মির্জা আব্বাস, মহিলা দলের সাধারণ সম্পাদক সুলতানা আহমেদ প্রমুখ।

বিজ্ঞাপন

অনুষ্ঠান উদ্বোধন করেন ড. খন্দকার মোশাররফ। এসময় তিনি বলেন, গত বছরটি ছিলো দুর্নীতি, লুটপাট, সন্ত্রাস আর বিশ্ব স্বীকৃতি পাওয়া স্বৈরাচারের বছর। এটি ছিলো আমাদের জন্য লজ্জার। অবৈধ সরকার গণতন্ত্র হত্যার মধ্যদিয়ে দেশকে এমন লজ্জা উপহার দিয়েছে। নতুন বছর সব গ্লানি মুছে নতুন করে এগিয়ে যাওয়ার বছর। খালেদা জিয়াকে মুক্ত করে গণতন্ত্র পুনরুদ্ধার করাই হবে আমাদের অঙ্গীকার।

তিনি বলেন, খালেদা জিয়াকে মুক্ত করে নির্দলীয় নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে নির্বাচন দিতে সরকারকে বাধ্য করা হবে। সে নির্বাচনে খালেদা জিয়ার নেতৃত্বে সরকার প্রতিষ্ঠা করবে বিএনপি।

মির্জা আব্বাস বলেন, বিএনপির জীবন থেকে ‘শুভ বিদায় নিয়েছে ২০০৭ সালে। সেই থেকে আজ ২০১৮ সাল পর্যন্ত বিএনপির কোনো শুভদিন নেই। অশুভ শক্তি আওয়ামী লীগ সরকারের পতন না হওয়া পর্যন্ত আমাদের কোনো শুভদিন নেই।

কয়েকশ নেতাকর্মীর উপস্থিতিতে বর্ষবরণ অনুষ্ঠানে প্রতিবাদী সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান করে শিল্পীরা। এদিকে খালেদা জিয়ার সঙ্গে তার আত্মীয় স্বজন কারাগারে সাক্ষাত করেছেন বলে জানা যায়।