চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

‘ক্ষতটা অনেকদিন থাকবে’

মস্কোতে শুরুতে এগিয়ে গিয়েও ক্রোয়েশিয়ার কাছে ২-১ গোলে হারের ক্ষতটা অনেকদিন থাকবে বলে জানিয়েছেন ইংল্যান্ড অধিনায়ক হ্যারি কেন। ম্যাচ শেষে স্বপ্নভঙ্গের বেদনার এই রূপ তুলে ধরেন টুর্নামেন্টে ৬ গোল করে গোল্ডেন বুটের দাবিদার এ তারকা।

‘ম্যাচটা অনেক কঠিন ছিল। আমরাও নিজেদের ঢেলে দিয়েছিলাম। একটা ৫০-৫০ ম্যাচ ছিল এটি। দুঃখজনক যে আমরা জিততে পারিনি। আমরা যখন এই ম্যাচটির দিকে ফিরে তাকাবো, আমরা দেখব নিজেরা সাবই সর্বোচ্চটা দিয়েই লড়েছি।’

এমন হারকে কেবল হৃদয়বিদারকই বলছেন কেন, ‘আমরা অনেক পরিশ্রম করে এ পর্যন্ত এসেছিলাম। এই হারের ক্ষতটা আমাদের অনেকদিন বয়ে বেড়াতে হবে। টুর্নামেন্ট শুরুর আগে আমরা কখনো চিন্তা করিনি এতো সুন্দর যাত্রা আমাদের হবে। কিন্তু আজ আমাদের থেমে যেতে হল।’

ম্যাচের তিন মিনিটের সময় ক্রোয়েশিয়ার বক্সের একটু বাইরে ফ্রি-কিক পায় ইংল্যান্ড। ডেলে আলী বল নিয়ে ঢুকতে গেলে তাকে ফাউল করেন মদ্রিচ। শট নিতে আসেন কাইরেন ট্রিপিয়ার। ডান পায়ের বাঁকানো ফ্রি-কিকে দৃষ্টিনন্দন গোলে জাল খুঁজে নেন।

শুরুতেই পিছিয়ে পড়লেও হাল ছাড়েনি ক্রোয়েটরা। তবে ইংলিশরা আর সাফল্য পায়নি। ৬৮তম মিনিটে ক্রোয়েশিয়াকে সমতায় ফেরান ইভান পেরিসিচ। নির্ধারিত সময়ের খেলা ১-১ গোলে শেষ হয়। অতিরিক্ত সময়ের খেলার প্রথম ১৫ মিনিটেও গোল আসেনি। ১০৯তম মিনিটে মারিও মানজুকিচ গোলে নিজেদের ইতিহাসের প্রথমবার ফাইনাল নিশ্চিত করে ক্রোয়েশিয়া। স্বপ্নভঙ্গ কেনের দলের।

এগিয়ে যাবার পরও কেনো জয়টা হাতছাড়া হল এমন প্রশ্নে কেন জবাব, ‘প্রথম গোল বাদেও আমরা বেশ কয়েকটি সুযোগ পেয়েছিলাম। কিন্তু কাজে লাগাতে পারিনি। আমরা বলের উপর ঠিকমতো নিয়ন্ত্রণ নিতে পারিনি। আসলে এমন বড় মাপের খেলায় অনেক যদি-কিন্তু থাকবে, কিন্তু আমরা পরাজিত।’

‘ম্যাচে কি ভুল হয়েছে সেটা বলা মুশকিল এবং কঠিনও বটে। আমাদের আরো ভালো খেলা উচিত ছিল। অবশ্যই ক্রোয়েশিয়া ভালো খেলেই জয় ছিনিয়ে নিয়েছে।’ যোগ করেন ইংলিশ অধিনায়ক।