চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

কোহলির রেকর্ড আর সেঞ্চুরির মিছিল থামছেই না

অন্যকোন দলের বিপক্ষে হলে ৩২২ রানের বিশাল সংগ্রহ নিয়ে খানিকটা নির্ভারই থাকতে পারতো ওয়েস্ট ইন্ডিজ। কিন্তু দলটা যে ভারত, আবার সে দলে খেলেন বিরাট কোহলি; প্রতিপক্ষের কোনো সংগ্রহই যে তাতে নিরাপদ নয় ক্যারিবীয়রা বুঝতে পারল আরেকবার।

বিজ্ঞাপন

সফরকারীদের ছুঁড়ে দেয়া ৩২৩ রানের লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে বিরাট কোহলি ও রোহিত শর্মার সেঞ্চুরিতে ৪৭ বল বাকি থাকতেই ৮ উইকেটের বড় জয় তুলে নিয়েছে ভারত।

ওয়েস্ট ইন্ডিজ বোলারদের কিছু করারও অবশ্য ছিল না। ব্যাটসম্যানরা না হয় বড় সংগ্রহ গড়েছেন, কিন্তু কোহলিকে আটকানোর মন্ত্র তো জানাননি। দ্বিতীয় ওভারে ওপেনার শেখর ধাওয়ানকে ফিরিয়েও তাই কাজ হয়নি। কোহলি পরে আরেক ওপেনার রোহিতকে নিয়ে ম্যাচ জেতানো ২৪৬ রানের জুটি গড়ছেন।

বিজ্ঞাপন

নেমেই ব্যাট চালিয়েছেন কোহলি। উইকেটের চারিদিকে শট খেলেছেন। নিজের ৪৯তম অর্ধশতক তুলে সেটাকে ক্যারিয়ারের ৩৬তম ওয়ানডে সেঞ্চুরিতে রূপ দিয়েছেন। ১৪০ রানের ইনিংস খেলে ফেরেন। ভারত অধিনায়ক সেটি ১০৭ বল, ২১ চার আর দুই ছয়ের মারে সাজিয়েছেন।

যাতে রেকর্ডের পাতায় আরেকটি অধ্যায়ে নাম তুলেছেন। অর্ধশতকে যখন পৌঁছান, বাকিসব ব্যাটসম্যানকে ছাড়িয়ে গেছেন ভারত অধিনায়ক। ২০১৮ সালে একমাত্র ব্যাটসম্যান হিসেবে গড়েছেন ২০০০ রান তোলার কীর্তি!

কোহলির দিনে রোহিতকে নিয়ে না বলাটাও অন্যায়। কোহলিকে ফেরাতে পেরেছেন ক্যারিবীয় বোলাররা, রোহিত ছিলেন অপ্রতিরোধ্য। শুরুতে নেমে দলকে জিতিয়েই মাঠ ছেড়েছেন। ক্যারিয়ারের ২০তম সেঞ্চুরি তুলে নিয়ে ১১৭ বলে অপরাজিত ছিলেন ১৫২ রানে। যাতে ১৫ চারের সঙ্গে ৮টি ছয়ের মার।

অথচ দিনটা হতে পারতো শিমরন হেটমায়ারের। ৪ উইকেট হারিয়ে যখন ১১৪ রানে ধুঁকছিল ক্যারিবীয়রা, অন্যপ্রান্তে ঝড় তোলেন এ ব্যাটসম্যান। তুলে নিয়েছেন নিজের তৃতীয় সেঞ্চুরি। তার ১০৬ রানের সঙ্গে শেষদিকে টেলএন্ডারদের ধুমধাড়াক্কা ব্যাটিংয়ে তিনশ পেরোনো সংগ্রহ পায় ওয়েস্ট ইন্ডিজ। কিন্তু কোহলির দিনে বাকিসব তো খেলনা!