চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

কৃষকের ভালোবাসায় সিক্ত চ্যানেল আই

প্রিয় চ্যানেলের ২০তম জন্মদিনে কৃষকরা সবজির ডালা নিয়ে শুভেচ্ছা জানাতে আসবেন না তা কি হয়? তাই প্রতিবছরের মতো এবারও চ্যানেল আই এবং শাইখ সিরাজকে শুভেচ্ছা জানাতে চ্যানেল আই প্রাঙ্গণে ছুটে এসেছেন কৃষক-কৃষাণীরা।

নরসিংদীর সেলিনা জাহান এসেছিলেন ১৪ জন কৃষকের দল নিয়ে। সবার মাথায় ‘মাথাল’। হাতে প্রিয় মানুষ শাইখ সিরাজ এবং ফরিদুর রেজা সাগরের জন্য শস্যমালা। সবজি দিয়ে বানানো বাংলাদেশের ম্যাপ।

গুণীজনদের উপস্থিতিতে সকাল এগারটায় চ্যানেল আই প্রাঙ্গণে কেক কাটা হয়। এরপর শুভেচ্ছা জানাতে মঞ্চে ওঠেন মাটির মানুষেরা। তারা চ্যানেল আইয়ের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ফরিদুর রেজা সাগর, পরিচালক জহির উদ্দিন মাহমুদ মামুন এবং পরিচালক ও বার্তা প্রধান শাইখ সিরাজের হাতে তুলে দেন সবজির তৈরি বাংলাদেশের ম্যাপ।

এসময় ফরিদুর রেজা সাগর বলেন, এই ম্যাপে কত ধরনের সবজি আছে শাইখ সিরাজ তা এক মিনিটে বলতে পারবে? শাইখ সিরাজ ম্যাপ দেখে বলতে থাকেন- আলু, পটল, সিম, বরবটি, কচু, ঢেঁড়সসহ সব সবজির নাম। এরপর কৃষাণের দল শাইখ সিরাজ ও ফরিদুর রেজা সাগরকে পরিয়ে দেন মাথাল ও শস্যমালা। শাইখ সিরাজ পরম আদরে কৃষকদের গলায় পরিয়ে দেন উত্তরীয়।

এরপর শাইখ সিরাজ সবাইকে পরিচয় করিয়ে দেন কৃষাণী সেলিনা জাহানের সঙ্গে। সেলিনা জাহান বলেন, চ্যানেল আই ও শাইখ সিরাজ আমাদের ভাগ্য পরিবর্তনে বিপ্লব ঘটাতে সাহায্য করেছে। তারা যেভাবে কৃষকের কথা ভাবেন আর কেউ এভাবে ভাবেন না। এজন্যই প্রতিবছর চ্যানেল আইকে ধন্যবাদ জানাতে আসি। শাইখ সিরাজকে ধন্যবাদ জানাতে আসি।

সাভার থেকে শুভেচ্ছা জানাতে এসেছিলেন রাজিয়া সুলতানা। চ্যানেল আই অনলাইনকে তিনি বলেন, শাইখ সিরাজ স্যার তরুণদের উদ্বুদ্ধ করছে। এখন অনেক শিক্ষিত তরুণ চাকরির পিছে না ছুটে কৃষিকাজে মনোনিবেশ করছে। যার অন্যতম উদাহরণ আমি নিজে। শাইখ সিরাজের অনুষ্ঠান দেখে আমি সাভারে ১৮ বিঘা জমি লিজ নিয়ে চায়না সবজি উৎপাদন শুরু করি। এখন এই খামার থেকে প্রতি সিজনে আমি ৬/৭ লাখ টাকা আয় করি। চ্যানেল আই কৃষি উদ্যোক্তা সৃষ্টি করছে।

শাহিন শাহরিয়ার নামে ডেন্টালের শিক্ষার্থী এসেছেন নরসিংদী থেকে। শাহিন বলেন, আমি ডেন্টালে পড়াশুনার পাশাপাশি কৃষি কাজ করি। শাইখ সিরাজের অনুষ্ঠান দেখে অনুপ্রাণিত হয়ে কৃষি কাজে মন দেই। ২০১০ সাল থেকে চ্যানেল আইয়ের জন্মদিনে শুভেচ্ছা জানাতে আসি। চ্যানেল আইয়ের মতো করে কৃষকের কথা আর কেউ ভাবে না।