চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

কখনো অভিনয়ে আসবো এটা ভাবতেও পারিনি: দোয়েল

ইমপ্রেস টেলিফিল্ম প্রযোজিত নাসির উদ্দিন ইউসুফের তৃতীয় ছবি ‘আলফা’ চলছে দেশের চারটি প্রেক্ষাগৃহে…

২৬ এপ্রিল দেশের চারটি প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পেয়েছে নাসির উদ্দিন ইউসুফ বাচ্চুর তৃতীয় ছবি ‘আলফা’। ইমপ্রেস টেলিফিল্ম-এর প্রযোজনায় ছবিতে কেন্দ্রীয় চরিত্রে অভিনয় করেছেন আলমগীর কবীর। ছবিতে গুরুত্বপূর্ণ চরিত্রে অভিনয় করেছেন মডেল ও অভিনেত্রী দোয়েল ম্যাশ।

বিজ্ঞাপন

এরইমধ্যে বেশকিছু টেলিভিশন প্রোডাকশনে দেখা গেছে দোয়েলকে। অভিনয় করেছেন একাধিক চলচ্চিত্রেও। তবু ‘আলফা’ ই তার প্রথম কাজ, কেননা এই ছবির মধ্য দিয়ে প্রথমবার ক্যামেরার সামনে দাঁড়িয়ে ছিলেন তিনি।

‘আলফা’-তে গুলেনূরের ভূমিকায় অভিনয় করেছেন দোয়েল। শনিবার চ্যানেল আই অনলাইনের নিয়মিত ফেসবুক লাইভ শো ‘কথাবার্তায়’ নিজের ক্যারিয়ারের প্রথম শুটিং অভিজ্ঞতার কথা জানাতে এসেছিলেন দোয়েল ম্যাশ ও আলমগীর কবীর।

দোয়েল ম্যাশ ‘আলফা’তে যুক্ত হওয়া প্রসঙ্গে বলেন, আমি মডেলিং দিয়ে ক্যারিয়ার শুরু করি। কিন্তু ভিজ্যুয়াল মিডিয়ায় ‘আলফা’ আমার প্রথম কাজ। যখন এই ছবির অডিশনের জন্য ডাকা হয় তখন আমি শুনতে পাই এটি নাসির উদ্দিন ইউসুফ বাচ্চুর ছবি। স্ক্রিন টেস্ট দিয়ে আসার পর উনার অফিস থেকে আমাকে জানানো হয় যে, আমি সিলেকেটেড! ওই ব্যাপারটা আমার জন্য প্রচন্ড এক্সাইটমেন্টের ছিলো। কারণ বাচ্চু ভাইকে তো আমরা আগে থেকেই চিনি, সাংস্কৃতিক কর্মী, মুক্তিযোদ্ধা কিংবা আমাদের তরুণদের পাশে সব সময় তিনি থাকেন। তো এই ছবিতে যুক্ত হওয়াটা ছিলো ভীষণ সৌভাগ্যের!

‘আলফা’ ছবির একটি দৃশ্যে দোয়েল ম্যাশ…

আলফায় কাজ করার আগে ভিজ্যুয়াল মিডিয়া কিংবা শুটিংয়ের মানে কী, এ সম্পর্কেই খুব একটা ধারনা ছিলো না দোয়েলের।

জানালেন, আমি কখনো থিয়েটার করিনি কিংবা অভিনয় করবো এরকমও কোনো প্ল্যান আমার কখনো ছিল না। তারপরও যখন ‘আলফা’তে অডিশন দিতে গেলাম, তখন দেখলাম যে সবাই আমাকে পছন্দ করেছেন। সে সময়টা খুবই আনন্দের ছিল, সেই সাথে কিছুটা নার্ভাসও ছিলাম। কারণ আমি তো এর আগে কখনো অভিনয় করিনি, ক্যামেরার সামনে দাঁড়ায়নি। শুটিং ব্যাপারটা আমি বুঝতাম না। মডেলিংয়ে তখন আমার ক্যারিয়ার তিন চার মাস সবেমাত্র।

তবে সবার সহায়তায় ভিজ্যুয়াল পর্বে উতরে গেছেন দোয়েল। বাহবাও পেয়েছেন অনেকের। দোয়েলও ‘আলফা’র মতো ছবির অংশ হতে পেরে নিজেকে সৌভাগ্যবান মনে করছেন।

‘আলফা’র পর বেশকিছু কাজ করেছেন দোয়েল। টিভি প্রোকাশন ছাড়াও ইতোমধ্যে দুটি ছবিতেও কাজ করেছেন তিনি। জানালেন কেএন রাশেদের ‘চন্দ্রাবতীর কথা’ এবং শবনম ফেরদৌসীর পরিচালনায় ‘আজব কারখানা’ নামের ছবিতে কাজ করেছেন। চন্দ্রাবতীর কথা মুক্তির প্রতীক্ষায় থাকলেও ‘আজব কারখানা’র শুটিং চলছে। ছবিতে দোয়েল ছাড়াও অভিনয় করেছেন পশ্চিমবঙ্গের জনপ্রিয় অভিনেতা পরমব্রত চ্যাটার্জী ও বাংলাদেশের জনপ্রিয় মডেল ইমি।

‘আলফা’ ছবির একটি দৃশ্যে আলমগীর কবীর ও দোয়েল ম্যাশ

তৃতীয় বিশ্বের একজন শহুরে নাগরিককে কেন্দ্র করেই গড়ে উঠেছে ‘আলফা’ চলচ্চিত্রের কাহিনি। এখানে ফুটে উঠেছে যান্ত্রিক শহরের বাস্তবতার সঙ্গে মানিয়ে নেয়া ও অন্তর্দ্বন্দ্ব নিয়ে বেঁচে থাকা এক চিত্রশিল্পীর জীবন।

ছবির মূল চরিত্রে আলমগীর কবির ও দোয়েল ম্যাশ ছাড়াও অভিনয় করেছেন প্রবীণ অভিনেতা এটিএম শামসুজ্জামান, হীরা চৌধুরী, ইশরাত নিশাত, মোস্তাফিজ নূর ইমরান ও ভাস্কর রাসা।

ইমপ্রেস টেলিফিল্মের ব্যানারে নির্মিত এ সিনেমার কাহিনি, চিত্রনাট্য ও পরিচালনা করছেন নাসির উদ্দিন ইউসুফ বাচ্চু। সম্পাদনায় আছেন ক্যাথরিন মাসুদ। ছবির কার্যনির্বাহী প্রযোজক হিসেবে আছেন এশা ইউসুফ।