চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

‘উপেক্ষার জবাব বলা ঠিক হবে না’

জাতীয় দলের দরজাটা বন্ধ ছিল টানা চার বছর। বাজিয়ে দেখতে কখনও ডাকা হয়নি ‘এ’ দলেও। দেশের হয়ে ওয়ানডেতে প্রথম দুইশ উইকেট শিকারি স্পিনার আব্দুর রাজ্জাককে বাতিলের খাতায়ই ফেলেছিলেন নির্বাচকরা। সাকিবের চোটে বিকল্প হয়ে টেস্ট দলে ফিরে সেই রাজ্জাকই বাঁ-হাতের খেল দেখিয়ে মিরপুর টেস্টের প্রথমদিনে তুলে নিয়েছেন চার উইকেট।

বিজ্ঞাপন

স্বপ্নিল প্রত্যাবর্তনের ম্যাচে এমন পারফরম্যান্স যেন জমে থাকা সব উপেক্ষার জবাব। দিনের খেলা শেষে দলের প্রতিনিধি হয়ে এসে রাজ্জাক অবশ্য নিজের নামের পাশে ‘উপেক্ষা’ বিশেষণটা সরাতেই চেষ্টা করলেন।

‘উপেক্ষার জবাব, তা নয়। আসলে জবাব হিসেবে দেখছি না। যখন যেখানে খেলার সুযোগ পেয়েছি, চেষ্টা করেছি ভাল করার। ভাল হলে খুশি হই। খারাপ হলে যে খুব মন খারাপ হয় সেটাও না। চেষ্টা করি সমস্যা খুঁজে বের করার। পারফরম্যান্সকে আসলে জবাব হিসেবে বলা ঠিক হবে না।’

বিজ্ঞাপন

২০১৪ সালে চট্টগ্রামে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষেই রাজ্জাক খেলেছিলেন সবশেষ টেস্ট। লম্বা সময় পর ফিরে এমন পারফরম্যান্স যে চাট্টিখানি কথা নয় সেটি বললেন লঙ্কানদের ব্যাটিং কোচ থিলান সামারাবীরাও, ‘আন্তর্জাতিক ক্রিকেট সবসময়ই কঠিন। চার বছর পর নেমে চারটা উইকেট নেয়া সহজ কথা নয়। সে খুব ভাল বল করেছে।’

মূর্তিকারিগর

তবে সেই কঠিন কাজটা করতে তেমন বেগ পেতে হয়নি রাজ্জাককে। প্রথম দিনের সকালেই পেয়ে যান উইকেটের দেখা। লাঞ্চ বিরতিতে যাওয়ার আগে তুলে নেন জোড়া উইকেট। পরের সেশনের শুরুতেই চতুর্থটি। ১৬ ওভার বল করে ৬৩ রান খরচায় ৪ উইকেট। টেস্টে ক্যারিয়ার সেরা বোলিং। আগেরটি ছিল ৯৩ রানে ৩ উইকেট।

ক্যারিয়ারে মাত্র ১৩তম টেস্ট খেলতে নামলেও প্রথম শ্রেণির আর ঘরোয়া ক্রিকেটে আছে শত শত উইকেট শিকারের অভিজ্ঞতা। প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে দেশের একমাত্র ৫০০ উইকেট শিকারি রাজ্জাকের ২২ গজের লেন্থ যে মুখস্থ সেটা বৃহস্পতিবারই দেখা গেল!