চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

ঈদের শুভেচ্ছা জানালেন ট্রুডো, ট্রাম্পের বিদ্বেষ

ঈদুল ফিতর উপলক্ষে কানাডায় বসবাসরত মুসলমানদেরকে প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডো ঈদের শুভেচ্ছা জানালেও এই বিষয়ে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প রেখেছেন ঠিক বিপরীত নজির। কয়েক শতকের পুরনো রীতি ভেঙ্গে রমজান মাসের শেষ দিনের ইফতার পার্টিও বাতিল করেছেন তিনি।

বিজ্ঞাপন

মুসলিমদের সবচেয়ে বড় এই ধর্মীয় উৎসবে কানাডার মুসলিম সম্প্রদায়ের প্রতি ভালোবাসা জানিয়ে শনিবার অনলাইনে একটি ভিডিও শেয়ারের মাধ্যমে ‘ঈদ মোবারক’ জানিয়ে ট্রুডো বলেন, ‘প্রতিবেশীদের প্রতি সম্প্রীতি কানাডার মূল চেতনা।’

এসময় রমজানে দেশজুড়ে মুসলিম পরিবারদের খাবার সরবরাহ করা কানাডার ফুড ব্যাঙ্কগুলোর প্রতিও নিজের ভালোলাগা প্রকাশ করেন ট্রুডো। এ বিষয়ে তিনি লিখেন, ‘মন্ট্রিয়ল এবং টরেন্টোর ফুন্ড ব্যাংকগুলোতে আমি কমিউনিটি স্পিরিট অনুভব করতে পারি। তা আমাদের সবাইকে স্মরণ করিয়ে দেয়, আমাদের ব্যাকগ্রাউন্ড যাই হোক আমরা সবাই এক।’

বিজ্ঞাপন

নিজ দেশের সাংস্কৃতিক বহুত্ববাদকে স্বাগত জানানো ট্রুডো এর আগেও পাঞ্জাবিদের বৈশাখি উৎসব বা তামিলদের পোঙ্গাল উৎসবে শুভেচ্ছা জানিয়ে বহুত্ববাদের প্রতি শ্রদ্ধার অনন্য উদাহরণ রেখেছিলেন।

কিন্তু ট্রুডোর এই ভালোবাসার ঠিক বিপরীত কাজ করেছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। দুই শতকেরও বেশি সময় ধরে চলে আসা রমজানের শেষ দিন হোয়াইট হাউজে ইফতার ডিনার আয়োজনের প্রথার সমাপ্তি টেনেছেন তিনি। চলতি বছরের শুরুতেই অবশ্য স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রেক্স টিলারসন ইফতার ডিনার বাতিলের আভাস দিয়েছিলেন।

তবে শনিবার বিকেলে এক বিবৃতিতে হোয়াইট হাউজ রমজান মাসে বিশ্বাস এবং উদারতার আলোকে মুসলিমদের প্রতি একাত্মতার কথা জানায়। ওই বিবৃতিতে বলা হয়, ‘এই পবিত্র দিনে আমরা রহমত, করুণা এবং এবং দয়ার গুরুত্ব অনুভব করি। বিশ্বের মুসলিমদের সাথে যুক্তরাষ্ট্র এই মূল্যবোধকে সম্মান করার প্রতি অঙ্গীকার পুনর্ব্যক্ত করছে। ঈদ মোবারক।’

৯/১১ এর ঘটনার পরেও প্রেসিডেন্ট জর্জ ডব্লিউ বুশ তার দুই মেয়াদের প্রতি বছর ইফতার ডিনার আয়োজন করেছিলেন। তখন তিনি বলেছিলেন, ‘লড়াই সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে, ইসলামের বিরুদ্ধে নয়।’