চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

ইনফোওয়ার্সের অ্যাকাউন্ট ডিলিট করবে না টুইটার

ইনফোওয়ার্স বা তার প্রতিষ্ঠাতা অ্যালেক্স জোনসকে টুইটার থেকে সরানো হবে না বলে জানিয়েছেন টুইটারের সহপ্রতিষ্ঠাতা ও প্রধান নির্বাহী জ্যাক ডরসি।

বিজ্ঞাপন

তাদের অ্যাকাউন্ট সামাজিক মাধ্যম প্ল্যাটফর্মের নীতির লঙ্ঘন করে না বলেই এমন সিদ্ধান্ত বলে জানান জ্যাক। তবে টুইটারের এমন অবস্থানের সমালোচনা করে অনেকেই ‘বিদ্বেষমূলক বক্তব্যকে’ পাশ কাটানো বা ব্যাখ্যাটিকে দায়িত্বহীন বলে মন্তব্য করেছেন।

এর আগে আইটিউনস, ফেসবুক এবং স্পটিফাই থেকে বিতাড়িত করা হয় ‘ষড়যন্ত্র তত্ত্ববিদ’ অ্যালেক্স জোনসকে।

বিজ্ঞাপন

“ঘৃণামূলক বিবৃতি ব্যবহারের কারণে” ইনফোওয়ার্স পেইজ ‘আনপাবলিশড’ করে দিয়েছে বিশ্বের সবচেয়ে বড় সামাজিক মাধ্যম ফেসবুকও।

সোমবার স্পটিফাই বিবিসিকে বলে, তারাও তাদের পডকাস্ট থেকে অ্যালেক্স জোনস শো সরিয়ে নিয়েছে। এক বিবৃতিতে প্রতিষ্ঠানটি বলে, আমরা ঘৃণামূলক কনটেন্টগুলো গুরুত্বের সঙ্গে নেই…।”

২০০১ সালের ১১ সেপ্টেম্বর যুক্তরাষ্ট্রে ঘটে যাওয়া টুইন টাওয়ার আক্রমণের ঘটনা মার্কিন সরকারের সাজানো ছিল- এমন ষড়যন্ত্র তত্ত্ব বারবার বলার কারণে জোনস অনেক সমালোচিত।

চলতি বছর জুলাইয়ে ইউটিউব জোনস-এর চ্যানেল থেকে চারটি ভিডিও সরিয়ে দেয়, এই চ্যানেলের ফলোয়ার সংখ্যা ২৪ লাখেরও বেশি।

মুছে দেওয়া ভিডিওগুলোর মধ্যে জোনস ইউরোপে যাওয়া মুসলিম অভিবাসীদের সমালোচনা করেন ও তৃতীয়লিঙ্গের মানুষদের নিয়ে নিন্দা করেন।