চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

ইজতেমায় কোনো ধরনের গুজবে কান দিবেন না: র‌্যাব ডিজি

ইজতেমায় আকাশে থাকবে ড্রোন ও হেলিকপ্টার

আসন্ন বিশ্ব ইজতেমায় কোনো ধরনের গুজবে কান না দেওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন র‍্যাবের মহাপরিচালক (ডিজি) বেনজীর আহমেদ।

বিজ্ঞাপন

তিনি বলেছেন, ইজতেমায় নিরাপত্তায় দায়িত্বে এবার পোশাকি র‍্যাবের চাইতে সাদা পোশাকি র‍্যাব বেশ দায়িত্ব পালন করবে। সুদৃঢ় নিরাপত্তার জন্য আকাশে হেলিকপ্টার ও ড্রোন থাকবে।

বৃহস্পতিবার দুপুরে কারওয়ান বাজারে র‍্যাবের মিডিয়া সেন্টারে বিশ্ব ইজতেমার নিরাপত্তা সংক্রান্ত সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন।

র‍্যাব ডিজি বলেন, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে গুজব রোধে আমাদের একটি মনিটরিং টিম কাজ করবে, ইজতেমার কোনো পক্ষই কোনো কিছু যাচাই বাছাই না করে তৃতীয় পক্ষের কোনো গুজবে কান দিবেন না।

তিনি বলেন, নিজেরা যাচাই না করতে পারলে আমাদের জানাবেন। আপনাদের পাশে সবসময় র‍্যাবসহ অন্যান্য আইনশৃঙ্খলা বাহিনী নিয়োজিত থাকবে।

তিনি বলেন, তাবলীগ জামাতের মুরুব্বীদের সাথে আমাদের প্রতিনিয়ত যোগাযোগ থাকবে যাতে করে কোন ধরনের গুজব সৃষ্টি হলে আমরা এটা দ্রুত নিষ্পত্তি করতে পারি। তাবলীগ জামাতের নেতৃবৃন্দ দের বলবো কোথাও কোনো তথ্য পেলে সেটি যাচাই না করে শেয়ার করবেন না। আর যাচাই না করতে পারলে আমাদের সাথে শেয়ার করবেন আমরা যাচাই করব। কিন্তু আনভেরিফাইড কোন তদন্ত এই বিশাল মহাসমাবেশে ছড়িয়ে দিবেন না। 

ইজতেমার নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিয়ে র‍্যাব ডিজি বলেন, আমাদের এবার যে পরিমাণ লোক থাকবে ইউনিফর্মে তার চেয়ে বেশি লোক থাকবে সাদা পোশাকে। আকাশে র‍্যাবের হেলিকপ্টারের সঙ্গে ড্রোন দিয়েও নিরাপত্তা সুনিশ্চিত করা হবে।

এছাড়াও ডগ স্কোয়ার্ড দিয়ে সুইপিং করা হবে। অন্য সববারের তুলনায় এবার সিসিটিভি কাভারেজ বেশি থাকবে।

বিজ্ঞাপন

এই মহাসমাবেশকে শান্তিপূর্ণভাবে অনুষ্ঠিত হতে আমাদের প্রস্তুতি পর্যাপ্ত। কোন ধরনের আশঙ্কা করার কোন কারন নাই। আমরা এই কথাগুলো বলছি যাতে করে কোন ধরনের কোন বিন্দুমাত্র সুন্দর সুযোগ না থাকে।

দেশের জনগণের পাশাপাশি বিদেশি মেহমানদের পর্যাপ্ত নিরাপত্তা দেওয়া হবে জানিয়ে বেনজীর আহমেদ বলেন: প্রত্যেকটা খিত্তা ছাড়াও বিদেশি মেহমানদের খিত্তাকে ঘিরে আমরা সাদা পোশাকের আবরণ সৃষ্টি করব।

বিদেশি মেহমানদের নিরাপত্তা দেশের স্বার্থের সঙ্গে জড়িত তাই আমরা লক্ষ্য রাখবো বিদেশি মেহমানদের নিরাপত্তায় যেন নষ্ট না হয়।

বেনজীর আহমেদ বলেন, তাবলীগ জামায়াতের মুরুব্বীদের উদ্দেশ্যে বলবো বিশ্ব ইজতেমা অনুষ্ঠিত হওয়ার সময় শান্তি শৃঙ্খলা পরিবেশ বজায় রাখতে, তার যেন কোনো মতবিভেদ সৃষ্টি না করে। এ বিষয়ে তাদের সঙ্গে একাধিকবার বৈঠক করেছেন মিটিং করেছি।

র‍্যাব ডিজি বলেন, তাবলীগ জামাতের নেতৃবৃন্দ এবং মুরুব্বীদের ব্যর্থতাকে আমরা বরদাস্ত করব না। কিন্তু কোন দায়িত্বশীলদের ভুলে কোন মুরুব্বীদের বলে কোন ব্যক্তির ভুলে বা কোন গ্রুপের বলে কোন ধরনের পরিস্থিতি সৃষ্টি করা হবে এটা কোনোভাবেই কাম্য নয়। এবং এটা বরদাস্ত করা হবে না। প্রথম গ্রুপ ইজতেমা শেষে শান্তিপূর্ণভাবে প্রস্থান করবে পরে আরেক গ্রুপ আসবে।

এরআগে র‍্যাব -১ এর কমান্ডিং অফিসার (সিও) লেফটেন্যান্ট কর্নেল সারওয়ার বিন কাশেম ইজতেমার নিরাপত্তা গণমাধ্যমের সামনে উপস্থাপন করেন।