চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

ইউরোপের ৪ দেশে সুজানা জাফর

অনেকদিন ধরে স্ক্রিনে নেই আলোচিত মডেল অভিনেত্রী সুজানা জাফর। গেল ডিসেম্বরে বালামের ‘হঠাৎ’ গানে মডেল হিসেবে ক্যামেরার সামনে দাঁড়িয়েছিলেন। এরপর নিজের ফ্যাশন হাউজ ‘সুজানাস ক্লোজেট’-এর বিক্রিবাট্টা নিয়ে ব্যস্ত ছিলেন সুজানা। বর্তমানে এই তারকার ব্যক্তিগত ফেসবুক ঘাঁটলে দেখা যাচ্ছে, তিনি ইউরোপের বিভিন্ন দেশে চেকইন দিচ্ছেন। রীতিমত চষে বেড়াচ্ছেন!

বিজ্ঞাপন

রোববার বিকেলে চ্যানেল আই অনলাইনের  সঙ্গে আলাপে সুজানা জাফর জানান, ইউরোপের চেক রিপাবলিকের প্রাগ শহরে আছেন তিনি। কেনাকাটা করছেন। সেখানকার বিখ্যাত সব জায়গা ঘুরে দেখছেন। নিজের মতো করে সময় কাটাচ্ছেন।

সুজানা জাফর বলেন, আমার আত্মীয়স্বজনদের বেশীরভাগই ইউরোপে থাকেন। বড়ভাই ও খালা থাকেন ইতালির রোম ও ভেনিসে। মূল উদ্দেশ্যে তাদের কাছে যাওয়া। তবে ইতালিতে প্রচণ্ড গরম পড়ছে। সেজন্য কাজিনকে নিয়ে ইউরোপের অন্যান্য জায়গা ঘুরে বেড়াচ্ছি। সেনজেন ভিসা পেয়েছি। তাই ইউরোপের ২৮ মতো দেশ ঘুরতে সমস্যা নেই।

চাইলেই যেকোনো জায়গায় যেতে পারছেন। পুরো ১ মাস ইউরোপে কাটাবেন এই অভিনেত্রী। তিনি বলেন, চেক রিপাবলিক থেকে হাঙ্গেগির রাজধানীর বুদাপেস্টে যাবো। সেখান কদিন থেকে ডেনমার্কের কোপেনহেগেন যাবো। তারপর যাবো ইতালি। সেখানে আমার বড়ভাই ও ভাবি থাকেন। তাদের নিয়ে একমাস পর দেশে আসবো। ফিরেই আবার ঈদুল আযহার জন্য আমার ব্যবসা প্রতিষ্ঠান নিয়ে ব্যস্ত হয়ে পড়বো।

সুজানা বলেন, গেল ঈদে খুব ভালো ব্যবসা করেছি। শেষ ২টা মাস এতো কষ্ট করেছি বলে বোঝানো যাবে না। ঘুম নেই, খাওয়া দাওয়া নেই শুধু কাজই করেছি। ব্যক্তিগত অনেক কাজ শেষ করতে পারিনি শুধু ব্যবসার কারণে। তবে আমার কষ্ট সার্থক হয়েছে। আশা করছি, আগামী ঈদেও ভালো ব্যবসা হবে। দেশে ফিরেই ফ্যাশন হাউজে ঈদ পণ্য তুলবো।

এবারের ঈদ দুবাইতে করেছেন সুজানা জাফর। ঈদের পর দেশে ফিরে উত্তরার ৯ নম্বর সেক্টরে চেশার হোমে প্রতিবন্ধী আবাসন কেন্দ্রে গিয়ে প্রতিবন্ধীদের সঙ্গে সময় কাটান এ তারকা। গেল কয়েকবছর ধরে এসব সুবিধা বঞ্চিত মানুষদের সুখ দুঃখে নিজেকে সম্পৃক্ত রেখেছেন সুজানা। জানান, শুধু ঈদ কিংবা উৎসব নয়, দেশে থাকলে প্রতি শুক্রবার তাদের সঙ্গে সময় কাটান।