চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

আশঙ্কামুক্ত এটিএম শামসুজ্জামান

সফলভাবে এটিএম শামসুজ্জামানের অস্ত্রোপচার সম্পন্ন হয়েছে…

সফলভাবে এটিএম শামসুজ্জামানের অস্ত্রোপচার সম্পন্ন হয়েছে। বর্তমানে তিনি চিকিৎসকদের পর্যবেক্ষণে আছেন। তবে তার শারীরিক অবস্থা নিয়ে এই মুহূর্তে কোনো ঝুঁকি নেই।

এটিএম শামসুজ্জামানের সর্বশেষ অবস্থা জানিয়ে চ্যানেল আই অনলাইনকে এমনটাই বলছিলেন তার ছোট ভাই সালেহ জামান সেলিম।

বিজ্ঞাপন

শুক্রবার রাতে হঠাৎ অসুস্থ বোধ করেন এটিএম শামসুজ্জামান। মল-মূত্র বন্ধ হয়ে যায়। শ্বাসকষ্ট শুরু হয়। রাত এগারোটার দিকে তাকে ভর্তি করা হয় রাজধানীর গেন্ডারিয়ার আজগর আলী হাসপাতালে। শনিবার দুপুর দেড়টা থেকে শুরু হয় অস্ত্রোপচার, যা শেষ হয় বিকাল সাড়ে চারটা নাগাদ।

এরপরেই এটিএম শামসুজ্জামানের ছোট ভাই চ্যানেল আই অনলাইনকে বলেন, সবার দোয়ায় এটিএম শামসুজ্জামানের সফল অস্ত্রোপচার হয়েছে। চিকিৎসকের পরামর্শে তাকে আগামিকাল সকাল পর্যন্ত পর্যবেক্ষণে রাখা হবে। এরপর বেডে স্থানান্তরিত করা হবে। তবে হাসপাতালে থাকতে হবে আরো অন্তত পাঁচদিন।

সেলিম জানান, ত্রিশ বছর আগে এটিএম শামসুজ্জামানের গলব্লাডারে একটি অপারেশন হয়েছিলো। গলব্লাডারে যে নলটি আছে এখানে কোনো কারণে প্রেসার পড়েছিলো বিধায় গত কয়েকদিন ধরে তার খাদ্য হজম হচ্ছিলো না। যার ফলে খাদ্যগুলো শক্ত পদার্থে রূপ নিয়েছিলো। আজকে অপারেশন করে এ সমস্যার সমাধান করলেন চিকিৎসকরা। এ নিয়ে আর কোনো ঝুঁকি নেই।

ষাটের দশকের শুরুতে পরিচালক উদয়ন চৌধুরীর ‘বিষকন্যা’ চলচ্চিত্রে সহকারী পরিচালক হিসেবে ক্যারিয়ার শুরু করেন এটিএম শামসুজ্জামান। প্রথম কাহিনি ও চিত্রনাট্যকার হিসেবে কাজ করেছেন ‘জলছবি’ ছবিতে। এ পর্যন্ত শতাধিক চিত্রনাট্য ও কাহিনি লিখেছেন। প্রথম দিকে কৌতুক অভিনেতা হিসেবে চলচ্চিত্র জীবন শুরু করলেও খল অভিনেতা হিসেবেই জনপ্রিয়তা পান এটিএম।

দীর্ঘদিন ধরে বার্ধক্যজনিত কারণে অভিনয় থেকে দূরে থাকলেও মাঝেমধ্যেই শখের বশে ছোট ছোট চরিত্রে অভিনয় করতে দেখা গেছে তাকে। তার অভিনীত মুক্তিপ্রাপ্ত সর্বশেষ ছবি নাসির উদ্দিন ইউসুফ বাচ্চুর ‘আলফা’। ২৬ এপ্রিল ছবিটি দেশের চারটি প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পায়।

ছবি: আরিফ আহমেদ