চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

আমাদের ‘স্মার্ট’ বাজেট ও এক পথশিশুর ‘কাগুজে’ রাজপ্রাসাদ

রাজধানীর তীব্র যানজট, অসহনীয় গরম আর অসংখ্য মানুষের কোলাহল ভুলে জাহাঙ্গীরগেট সংলগ্ন ফুটওভার ব্রিজে বসে আপন মনে কাগুজের রাজপ্রাসাদ গড়ে যাচ্ছিল এক পথশিশু। ঠিক সেই সময় তাকে পাশকাটিয়ে চলা পথচারীদের মুখে মুখে ছিল ‘স্মার্ট’ বাজেটের আলোচনা।

শনিবার দুপুরে ওই ফুটওভার ব্রিজে উঠে চোখ আটকে যায় একটি দৃশ্যে! ফুটওভার ব্রিজের মাঝে বসে সেই পথশিশু ইট-পাথরের বদলে, কাগুজে গড়া প্রাসাদের চারদিকে সীমন্ত দেয়াল তৈরি করছিল কাগজের স্টিকার দিয়ে। উচ্চাভিলাষ ও রাজকীয়তার ছাপে গড়া কাগুজে প্রাসাদটি দেখতে দেখতেই জানতে চাইলাম শিশুটির নাম পরিচয়। লাজুক চোখে ১০-১২ বছরের শিশুটি বলে, ‘নাম সাগর। মহাখালী ফ্লাইওভারের নিচে থাকি। বাবা-মা নাই।’

শিশু সাগর যখন আমার সাথে কথা বলছিল, ঠিক সে সময়ই ফুটওভার ব্রিজ দিয়ে হেঁটেচলা কয়েকজন পথচারীর একপশলা আলোচনা কানে ভেসে আসলো। তাদের আলোচনার বিষয় ‘স্মার্ট’ বাজেট। হ্যাঁ, ‘সমৃদ্ধ আগামীর পথযাত্রায় বাংলাদেশ: সময় এখন আমাদের, সময় এখন বাংলাদেশের’ শিরোনামে প্রস্তাবিত যে ‘স্মার্ট’ বাজেট বৃহস্পতিবার ঘোষণা করা হয়েছে, তার কথা আমারা জেনেছি। ৫ লাখ ২৩ হাজার ১৯০ কোটি টাকার সে বাজেটে কর আদায়ের পরিমাণ বৃদ্ধিসহ নানা প্রণোদনার প্রতিশ্রুতি দেওয়া হয়েছে। প্রস্তাবিত এ বাজেট ‘স্মার্ট’ নাকি ‘চটকদার’ সেটা হয়তো ভবিষ্যৎ বলে দেবে।

তবে আমরা নাগরিক হিসেবে প্রত্যাশা করি, প্রস্তাবিত বাজেটে শিশুদের জন্য ৮০ হাজার ২০০ কোটি টাকার যে বরাদ্দ নির্ধারণ করা হয়েছে, তার প্রকৃত সুফল যেন পৌছে যায় সাগরের মত পথশিশুদের জীবনমানের উন্নয়নে। ওদের মত পথশিশুদের জন্য শিক্ষার আলো আর সুন্দর ভবিষ্যত নিশ্চিতে রাষ্ট্রকেই দায়িত্ব নিতে হবে। এগিয়ে আসতে হবে অগ্রাধিকারের ভিত্তিতে। প্রকারান্তরে রাষ্ট্রকেই হতে হবে পথশিশুদের অভিভাবক।

তাহলেই হয়তো ফুটওভার ব্রিজে কাগুজে রাজপ্রাসাদ নয়, সাগরের মত শিশুরা ভবিষ্যতে এদেশের পরতে পরতে সত্যিকারের রাজপ্রাসাদ গড়বে। ওদের বহুমাত্রিক অবদানেই হয়তো মাথা উঁচু করে দাঁড়াবে আমাদের অর্থনীতি, বদলে যাবে আমাদের প্রিয় বাংলাদেশ।

(এ বিভাগে প্রকাশিত মতামত লেখকের নিজস্ব। চ্যানেল আই অনলাইন এবং চ্যানেল আই-এর সম্পাদকীয় নীতির সঙ্গে প্রকাশিত মতামত সামঞ্জস্যপূর্ণ নাও হতে পারে।)