চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

আনসার আল ইসলামের অপারেশনাল টিমের সদস্য আটক

আসন্ন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নাশকতা সৃষ্টির পরিকল্পনার উদ্দেশ্যে রাজধানীর জুরাইন এলাকা থেকে নিষিদ্ধ ঘোষিত জঙ্গি সংগঠন আনসার আল ইসলামের অপারেশনাল টিমের প্রশিক্ষণ প্রাপ্ত এক সক্রিয় সদস্যকে আটক করেছে এলিট ফোর্স র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটেলিয়ান র‌্যাব।

বুধবার রাতে দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ বসুন্ধরা রিভারভিউ এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে মো. আব্দুল ওয়াহাব ওরফে মোস্তাফিজুর ওরফে হাদীদ (৪০) নামের জঙ্গিকে আটক করে র‌্যাব-৩।

বিজ্ঞাপন

বিষয়টি চ্যানেল আই অনলাইনকে র‌্যাব-৩ এর কমান্ডিং অফিসার (সিও) লেফটেন্যান্ট কর্নেল মো. এমরানুল হাসান নিশ্চিত করেছে।

তিনি জানান, নির্বাচনকে কেন্দ্র করে নাশকতার উদ্দেশ্যে ওয়াহাব ও তার সহযোগীরা পরিকল্পনা ও সংগঠিত হচ্ছিল এবং তারা গোপনে নিয়মিত মিটিংও করছিল।

বিজ্ঞাপন

প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদের জানা যায় যে, ২০১৩ সালে আনসার আল ইসলামের আধাত্মিক নেতা জসীমুদ্দীন রাহমানির গ্রেপ্তারের পর ওয়াহাব গোপনে আনসারুল্লাহ বাংলা টিমের দাওয়াতি ও সাংগঠনিক কার্যক্রম শুরু করে। ওয়াহাব ২০১৫ সালে রাজধানীর জুরাইনে গোপনে আনসার আল ইসলামের ৭/৮ জন সদস্য নিয়ে অপারেশনাল সেল গঠন করে। পরে জুরাইন সেলের কয়েকজন সদস্য আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর হাতে ধরা পড়লে তারা গোপনে দাওয়াতি ও সাংগঠনিক কার্যক্রম পরিচালনা শুরু করে। তারা নতুন কর্মী সংগ্রহ, মাসিক চাঁদা আদায় ও দরিদ্র মানুষকে সহায়তার নামে যাকাতের টাকা সংগ্রহ করে সংগঠনের কাজে ব্যবহার করত।

গ্রেপ্তারকৃত জঙ্গিদের দ্রুত জামিনে মুক্ত করে আনতে পরিবারকে সহায়তা ও সাংগঠনিক কাজে তারা এ অর্থ ব্যবহার করত।

এমরানুল হাসান বলেন, আসামীর ভাষ্যমতে তার গ্রামের বাড়ি রাজশাহীর বাগমারা থানায়। ২০০৫ সালে সে ঘনিষ্ট এক বন্ধুর সহযোগিতায় জেএমবিতে যোগদান করে এবং সক্রিয়ভাবে রাজশাহীর বাগমারায় জেএমবির কার্যক্রমে অংশগ্রহণ করে।

পরে ২০১১ সালে সে জসীমুদ্দীন রাহমানির আদর্শে অনুপ্রাণিত হয়ে আনসারুল্লাহ বাংলা টিমে যোগদান করে এবং জসীমুদ্দীন রাহমানির ঘনিষ্ট সহযোগী হিসেবে কাজ শুরু করে। ২০১৩ সালে ওয়াহাবের আমন্ত্রণে জসীমুদ্দীন রাহমানির বাগমারা এলাকায় সাংগঠনিক কার্যক্রম পরিচালনার জন্য দুইদিন অবস্থান করে এবং বিভিন্ন স্থানে গোপন মিটিং করে।

ওয়াহাবের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন বলেও জানান র‌্যাবের এ ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা।