চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

‘অসাধ্য সাধনের’ খোঁজে সালাহহীন লিভারপুল

রাশিয়া বিশ্বকাপে ওয়েস্টকোটকে বিখ্যাত করে ফেলেছিলেন ইংল্যান্ড কোচ গ্যারেথ সাউথগেট। সেই ওয়েস্টকোট ফ্যাশনের সিক্যুয়েল চলে গেছে খোদ ইংল্যান্ডেই। এবার সৌজন্য বার্সা অ্যান্ড কোং। যারা বার্সেলোনা থেকে লিভারপুলে গেছেন টাই ও ওয়েস্টকোট জড়িয়ে।

বিজ্ঞাপন

মাঠের খেলার মতো বার্সেলোনার ফুটবলারদের মাঠের বাইরের স্টাইল নিয়েও তাই আলোচনা ইংলিশ মিডিয়ায়। লিভারপুলের চিন্তায় অবশ্য মাঠের ভিতরের স্টাইলটাই।

অ্যানফিল্ডে শোনা যাচ্ছিল, পুরোনো সেই ম্যাচের কথা। লিভারপুলের ইতিহাসে তো বটেই, চ্যাম্পিয়ন্স লিগেও যে ম্যাচের উদাহরণ টানা হয় সেরা ‘কামব্যাক’ বোঝাতে। এসি মিলানের বিরুদ্ধে চ্যাম্পিয়ন্স লিগ ফাইনালে লিভারপুলের অসাধ্য সাধন। ইস্তানবুলের সেই ফাইনালেও প্রথমার্ধে লিভারপুল পিছিয়ে পড়েছিল ০-৩। বিরতির পর স্টিভেন জেরার্ড-জাভি আলোনসো ৩-৩ করেন। পরে টাইব্রেকারে ম্যাচ জেতে ইংলিশ জায়ান্টরা।

সেই গল্পেই তাতানোর চেষ্টা চলছিল মোহামেদ সালাহদের। কিন্তু কাকে আর এভাবে তাতানো সম্ভব? মৌসুমের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচের আগে এখন ইয়ুর্গেন ক্লপকে খুঁজতে হচ্ছে সালাহ-ফিরমিনোদের বিকল্প।

বিজ্ঞাপন

ব্রাজিলিয়ান ফিরমিনো যে মঙ্গলবার বার্সেলোনার বিরুদ্ধে দ্বিতীয় লেগে খেলতে পারবেন না, তা আগেই জানা গিয়েছিল। শনিবার রাতে প্রিমিয়ার লিগের ম্যাচে মাথায় চোট পেয়েছিলেন সালাহ। যা নিয়ে পরে ক্লপ বলেন, ‘সালাহ্ এখন ঠিক আছে।’ সোমবার আর সেই প্রত্যয় দেখাতে পারেননি জার্মান কোচ। বলেই দেন, ‘সালাহ খেলতে পারবে না।’

জার্মান কোচ হতাশা না লুকিয়েই বলেছেন, ‘বিশ্বের অন্যতম সেরা দুই ফরোয়ার্ড কাল (মঙ্গলবার) খেলতে পারবে না। আর আমাদের চার গোল করতে হবে!’

ক্লপ অনেকটা ধরেই নিয়েছেন ফাইনালে যাওয়া আর সম্ভব নয়। তার কথায়, ‘আমরা ৯০ মিনিট চেষ্টা করব চ্যাম্পিয়ন্স লিগ ভালোভাবে শেষ করার। এটাই আমাদের পরিকল্পনা। যদি আমরা ফাইনালে যেতে পারি তাহলে দারুণ হবে। আর না পারলে, সেটাও যেন ভালোভাবে হয়।’

লিভারপুল ও ক্লপের দুর্ভাগ্য পুরো মৌসুমে দারুণ ছন্দে থাকা মিডফিল্ডার নাবি কেইটাও খেলতে পারবেন না এই ম্যাচে। তার পুরো মৌসুমই শেষ হয়ে গেছে। চিন্তা আছে সেরা ডিফেন্ডার ফন ডাইককে নিয়েও। সোমবার অনুশীলনই করতে পারেননি ডাচ তারকা।

চোটের জ্বালা অবশ্য আছে বার্সেলোনাতেও। উসসমানে ডেম্বেলে কোনোভাবেই খেলতে পারবেন না।

ঘরের মাঠে প্রথম লেগে ৩-০তে এগিয়ে থাকায় স্বভাবতই অনেকটা অ্যাডভান্টেজ পেয়ে যাচ্ছেন লিওনেল মেসি, লুইস সুয়ারেজরা। তবে চ্যাম্পিয়ন্স লিগ অনেক সময়েই হিসেবের বাইরে চলে। রূপকথার জন্ম হয় সেই হিসেবের বাইরে পা ফেলেই। তাই সেই রূপকথার প্রত্যাশাতেই অ্যানফিল্ড ভরাবেন লিভারপুল সমর্থকরা।